Friday, April 20, 2007

ধূসর খরগোস-১

আমার তিনতলার ফ্ল্যাট থেকে ব্যালকনিতে দাঁড়ালেই সামনে পার্কিং লট। তার ওপাশে বেশ খানিকটা উঁচু ঢিবির মত। তার উপর সারি সারি গাছ। ঢিবির ওপারে রেললাইন। রেললাইনের ওপাশে বিশাল পার্ক। এসব দেশে পার্ক মানে বাংলাদেশের মত জরাজীর্ণ পার্ক নয়। পার্ক মানে কনজারভেশন এরিয়া, সাথে চিত্ত বিনোদনের জন্য সুব্যবস্থা।

রেললাইনের একপাশে সারি সারি গাছ। নাম জানিনা। শীত শেষ হয়েছে অনেক আগেই। পঞ্জিকামতে গ্রীস্ম এসেছে মার্চের ২৩ তারিখ। অথচ থার্মোমিটারে তাপমাত্রা এখনো ৩-৪ ডিগ্রি। আজই তা ১৬তে উঠেছিল। কিন্তু হলে কি হবে বাইরে বের হয়েছিলাম, শীত শীত ভাব যায়নি। এ এক আশ্চর্য দেশ!

দিনে তাপমাত্রা হেরফের হলেও রাতে মোটামুটি স্থির থাকে। সেদিন রাত ১১টার দিকে বেরিয়েছি ইউনিভার্সিটিতে যাব একটা কাজে। পরীক্ষার খাতা দেখা কিছু বাকি আছে। সেগুলি আনতে যাই। পরদিন ফেরত দিতে হবে। গাড়ি স্টার্ট দিয়ে বসে আছি ওয়ার্ম আপ করার জন্য। হেডলাইট জ্বালাতেই সামনের ঢিবির উপর দেখি একটা খরগোস। ধূসর রঙ। ঢিবির উপর ফূল গাছ লাগানোর জন্য বেড তৈরী করা হয়েছে। সেখানেই খরগোসটা বসে আছে। খাবারের সন্ধানে নেমেছে। গায়ে আলো পড়তেই চুপ করে এদিকে তাকিয়ে আছে। একটুও ভায় নেই চোখে। কয়েক মুহূর্ত মাত্র, লাফিয়ে লাফিয়ে সরে গেল কয়েক ফুট দূরে। পাশেই আরেকটা বেড। সেদিকে এগোচ্ছে আস্তে আস্তে। আমিও ধীরে চালিয়ে খরগোশটা ফলো করছি। আমি খরগোশটার পাশাপাশি চলছি। একসময় সেটি অন্ধকারে কোখায় হারিয়ে গেল। আমিও আমার কাজে চলে গেলাম।

No comments: